অপেক্ষা – অচিন্ত্য পোড়েল

অপেক্ষা - অচিন্ত্য পোড়েল

এক শীতের বিকেলে ঠিক সেই কানানদির তীরে
বসেছিলাম এক সুন্দর পরিবেশ দেখার জন্য।
সেই সুন্দর পরিবেশ দেখার সাথে সাথে অনুভব করি বাতাসে ধেয়ে আশা নারির কন্ঠ।

সেই কন্ঠ শুনতে পেয়ে আমি পিছন দিকে
ঘুরে তাকালাম। দেখি একটি মেয়ে ফুলবাগানের
পাশে ফুলের অপরূপ দৃশ্য দেখে উপভোগ
করছে।

কেনো জানি না সেই মেয়ে টিকে দেখে মনটা
যেন ব্যাকুল উঠলো।
সেই দুটি চোখ,সেই ঠোঁট আর ঠোঁটের নিচে
কালো তিল। মনের ভিতর টা তোলপার করে উঠেছে। সেই দিনের রাতটা আমার দুচোখের
পাতা এক করতে পারিনি।

প্রত্যেক দিন সেই নদীর ধারে এক বটগাছের নিচে
দাঁড়িয়ে তার মুখের দিকে তাকিয়ে থাকতাম।
জানিনা কখন যে তাকে ভালোবাসে ফেলেছি
নিজের অজান্তেই।
তারপর থেকে প্রতিদিন তাকে দেখার জন্য আমি
সেই জায়গায় অপেক্ষা করতাম দিনের পর দিন।
শুধু মাত্র তাকে দেখার জন্য। সাহস করে আজ ও
বলতে পারিনি। কিন্তু সে আমার ভালবাসার ইঞিত
বুঝতে পেরেছে ঠিকি কিন্তু সে আজ ও পযন্ত প্রকাশ করে নি।

আজও আমি তার জন্য  অপেক্ষা করি ঘন্টার পর ঘন্টা। শুধু মাত্র তার জন্য যে সে 
আসবে তার রাগ
মনের খোভ ভুলে। সে সামনে না আসুক আমার
তার প্রতি বিশ্বাস আছে যে আজ বা নয়তো কাল
ঠিকই আমার সাথে ফোনে যোগাযোগ করবে।

আজও তার জন্য আমি অপেক্ষা করে থাকি
কানানদীর তীরে সেই বটগাছের নিচে……..।।

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: