আমাদের বিজ্ঞান চর্চা – মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ

প্রত্যন্ত প্রাইমারী,হাইস্কুলের বেশ ক’জন শিক্ষকের সাথে কথা বললাম, যারা বিজ্ঞান পড়ান–তারা নিজেরাই এই ধারনায় বদ্ধমূল —১)আমরা ফাঁপা পৃথিবীর অভ্যন্তরে আছি।আকাশটাকে মনে করেন ছাদের মতো।


২)পৃথিবী স্থির, সূর্য ই পৃথিবীর চারদিকে ঘোরে।
৩)পৃথিবী চ্যাপ্টা থালার মত
৪)পৃথিবীর অভ্যন্তরে একটা জন্তু নড়ে ওঠে বলে ভূমিকম্প হয়।
৫)মানুষ ক্রমেই বিবর্তিত হয়ে এপর্যায়ে এসেছে,এই ধারনা ভুল।
তাদেরকে সঠিক বিজ্ঞানসম্মত ধারনা দিতেই বলে উঠলেন —-
আপনে কইলেই বিশ্বাস করন লাগব?


আমরা বিজ্ঞান ভিত্তিক শিক্ষাটা কার কাছে আশা করতে পারি?
অনেক স্কুলে ল্যাব নেই।থাকলেও যন্ত্র পাতি নেই।বিজ্ঞান ভাল বোঝেন তেমন শিক্ষক নেই।যারা আছেন তারা প্রাইভেটের ভালো ব্যবসার জন্য শহরে, নগর, মহানগরে থাকেন।
ইতিমধ্যে স্কুল পর্যায়ে লক্ষ লক্ষ টাকার বিজ্ঞান প্র্যাকটিকেলের জন্য যন্ত্রপাতি গিয়েছে।নিশ্চিত বলতে পারি ওগুলো ওভাবেই পড়ে আছে।কারন ওগুলো নাড়াচাড়া করার মতেো যথেষ্ট দক্ষ শিক্ষকই নেই।


আর সাধারন ছাত্রের ধারনাই হয়ত সঠিক –প্র্যাকটিকেল পরীক্ষায় বাড়তি কিছু টাকা খরচা করলে এমনিতেই নাম্বার পাওয়া যায়।কিছুই করতে হয়না।তাই প্র্যাকটিকেল ক্লাশ টাস ওসব কিছুইনা।গোল্ডেন প্লাস তো মাস্ট।কেউ আটকাতে পারবেনা।
আর আমাদের গোড়ায় গলদ থেকেই যায়।


পৃথিবী যেখানে এগুচ্ছে।আমরা উপহার দিচ্ছি বিজ্ঞান বিমুখ,বিজ্ঞানজ্ঞ,অথর্ব একটা প্রজন্ম।
সাইন্স শব্দটা আমার কাছে একটা প্রহসন বলে মনে হয়।প্রচুর টাকা বাজেট আসে স্কুলে।অবকাঠামো আগের চেয়ে রমরমা।কিন্তু গুণগত মানে পাঠদান পর্বটি আগের মতই অন্তঃসার শুন্ড।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top