একটা যুদ্ধ…. — সব্যসাচী নজরুল

banglastoryboard.com

পদ্মার ধূ ধূ বালুচরে ঘর্মাক্ত দিনের শেষে কীর্তিনাশায় গা ভিজাই,

ক্লান্ত দেহখান কখন জানি ঝিমিয়ে পরে বটের ছায়ায়।

সুদূর বিস্তৃত ভূমি মাঝে নিরবতা ভেঙে জেগে ওঠা তোমার একাকী জীবনের বিরহগাথা, কষ্টরা, অমানিশায়-

ব্যথার গীত রাগে-অনুরাগে করুণ সুরে বেজে যায়।

শুনলেও যা শিহরণ জাগাতে পারে না পাথর-চাপা এ কঠিন প্রাণে!

আলিঙ্গনে আলিঙ্গনে কোমল পরশে জড়িয়ে রাখা,

 আমায় ঘিরে থাকা তোমার অস্তিত্ব টের পেয়েও আমি নিরুপায়?

ব্যথা, কিযে ব্যথা, নিদারুণ কষ্টে চোখে জল ঝরে যায়।

অনুভূতি-স্পর্শগুলো পাঁজর ভেঙে কলিজা ছিঁড়ে গলিত বিগলিত হয়ে গড়িয়ে পড়লেও, আহারে-

ওরে হায়, হায় হায় আমি নিরুপায়!

ক্রমাগত ধাবমান একটা যুদ্ধ,

এ জীবনময় চলমান একটা যুদ্ধ। 

অস্ত্রহীন কম্পিত হৃদে ধীর পায়ে হেঁটে যাই, 

তবুও লড়ে যেতে চাই।

একটা বিজয় চাই, একটা মুক্তি চাই

প্রিয় চিরচেনা জগতে আমৃত্যু তোমায় নিয়েই বাঁচতে চাই।

চারিদিকে ভয়-আতঙ্ক, মৃত্যু উপত্যকা খুলেছে দ্বার,

দলছুট এক নেকড়ে আধিপত্য বিস্তার করছে বারংবার। 

পাহাড় বেয়ে নেমে আসা ভীষণ ক্ষুধার্ত

শৃগালের দলে

তোমাকে আমাকে খেতে চায়

পলায়ন করে ঝাপ দেবো অথৈজলে

না, না, আমিতো এমন মানুষ নই?

পশ্চাৎপদে রবো, অগ্রগামী এ আমিতো এমন নই!

দেহের শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত –

ওষ্ঠাগত শেষ দমটুকু পর্যন্ত প্রাণপণে লড়ে যেতে চাই,

স্বভূমে নিরোগ নিরাপদ আশ্রয়ে তোমায় নিয়ে বাঁচতে চাই।

বাঁচতে চাই, বাঁচতে চাই……

০২/০৩/২০২০,

উৎসর্গ: বিশ্বময় ‘ করোনাভাইরাস ‘ প্রতিরোধে যারা আপ্রাণ চেষ্টা করে প্রাণপণে লড়ে যাচ্ছে। 

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: