নীলের বাতি / / অপূর্ব শীট

100

এসো,

তোমার স্বপ্নগুলি ছুঁয়ে দিই আজ নগ্ন দুপুরে

চৈত্রের দমকা হাওয়ায় উড়ে গ্যাছে ছন্দের ভূল

এখন শুধু কবিতায় ঘুম,চারিদিকে নব কলেবর

অশ্বথের পাতা,টিয়ার পালকের মতো ফিকে সবুজ,

হারায় নি তো কিছুই ওগো,

স্তব্ধ পুকুর মাঠ,ঘুমায়নি হাঁস,

ঠোঁটে ঠোঁটে আদরের চুম ,

খেজুরের তলে ডুমুরের শীতল ছায়া |

দ্যাখো ,

ভালোবাসার ভোরগুলো

শিরিষের ফুলে ফুলে,টগরের গন্ধে গন্ধে

মহুয়ায় মাতোয়ারা |

সেই

      কবে

লক্ষ্য রেখে রেখে গাজনের পথ

আবছা আলোয় আবছা ভোর

ইশারার ভাষা ফেরাচ্ছে ইশারায়

স্বপ্ন সমুদ্রে দুই কিশোরী কিশোর |

একহাতে ডালি ভরা ফুল,কচিকচি বেলপাতা,

অন্যহাতে আকন্দের মালা ,কপালে চন্দনের টিপ ,চোখদুটোয় ভরে ছিলো কবিতার ভাষাsk

জীবনের প্রথম কবিতাটা |

তখনো দু ছন্দ কবিতা লিখিনি ||

চারিদিকে চড়কের ওঠানামা,

চুড়িমালা দোকান পুতুল মানুষ মুখোস

বাঁশির সুর আর ঢাকের বোল

“ভক্তা নাচে ড্যাড্যেং ড্যাং

তালগাছে দুটো ঠ্যাং

ভক্তা নাচে ড্যাড্যেং ড্যাং

তাল গাছে দুটো ঠ্যাং “

আর

“হরহর দিগম্বর নাথমনি মহাদেব “

কাশীতে বিশ্বেশ্বর বাঁকুড়ায় এক্তেশ্বর

নাথমনি মহাদেব “

বাবা আমাদের জগৎগুরু

বাবা আমাদের কল্পতরু

এক্তেশ্বর নাথমনি মহাদেব “

তোমাকে চোখে চোখে হারাচ্ছি তখন

হারিয়ে গেল প্রথম কবিতাটা

এসো,

তোমার স্বপ্নগুলো ভিজিয়ে নিই

চৈত্রের মধুমাসে,দ্বারকেশ্বরের শীর্ণ স্রোতে

সকালেই নীলের বাতি নিশ্চয় জ্বালাতে

আসবে তুমি ?

কত,শতশত তুমির ভেতর তুমি

তুমি! আবহমান তুমি!

চলো যাই এক্তেশ্বরের মেলায়

সেদিনের কবিতাটা লেখা হয়নি

কবিতাটাকে খুঁজি আরো একবার ||

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *