প্রনব রুদ্রের কবিতা

শিশির পায়ে

রাতগুলো সব বড্ড একা

প্রেমিক মেঘের নেই দেখা

আগুন্তক ঠিকানা ভুলে

পাখি ফেরেনি নীড়ে।

বারুদ বিস্ফোরণ

হৃদয় জলসাঘরে

কেউ আসুক শিশির পায়ে … …

 

ঝাপসা

চোখের তারা

ক্লান্ত হলো

বিষন্ন বাতাস

আগুন দিলো

ঝাপসা চোখ

আবছায়া সব

বাঁচার চেয়েও

 মরণ ভালো?

পেরিয়ে পথ

উপেক্ষার পালায় অপেক্ষার জ্বালা

প্রতিক্ষণ আক্ষেপে ফুসফুসে বিক্ষোভ

ভুল করেও ভুলে কেন যাই না

পেরিয়ে আসা পথ?

আজ এতোদিন পরও

জ্বলছে আগুন… জ্বালছে সব

আসক্ত

নির্ভার জীবনে রূপেরমোহ

পার্থিব আসক্তির

অসংখ্য ভালোবাসা।

একটার পর একটা সংসারী বুদবুদ দানা

কুচঁকানো জামার নীচে কবিতা লিখে

পেটের সমাধিতে কত রহস্যডানা।

কবিতা ছাড়া সত্য কিছু নেই

কবিতার মতো আসক্তি আর নেই।

ইরা

যেখানে খুশি জমুক কালো মেঘ

তবু বৃষ্টি তোমাকে ভেজাতে চাই না।

 পৃথিবীর গভীরতম ঘড়ির যে পেন্ডুলাম

ভালোবাসা, চিরদিনই বকের মতো সাদা।

ঠিক এখান থেকে কতদূরে তুমি ইরা?

পৃথ্বী মাঝেও কি তুমি বিকশিত তারা?

এবড়ো খেবড়ো জীবন কনসার্টে

মাটি হাওয়া রং ডেসার্টে

আততায়ী উৎসব।

আচ্ছা, ভালোবাসি এ কথা; না বললে কি

ভালোবাসা যায় না, নাকি ভালোবাসা হয় না?

ভালোবাসলেই তাকে পেতে হবে

এমন সংবিধান অবশ্য কোন দেশে নেই

আর নেই বলেই আমি সফলভাবে ব্যর্থ, এটা বুঝতে-

কেন এক আনালায় আমাদের জামা কাপড় থাকে না!

এতো বৃষ্টি হয় পৃথিবীতে তবু আজো আমি চাই না

তোমার চোখের বৃষ্টি তোমাকে ছুঁয়ে যাক কখনো…

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: