প্রনব রুদ্র এর কবিতা

মুখোমুখি 

ক্লিশে বড়ো দীর্ণ সময়

বিরক্তিকর প্রতিটি শ্বাস

হাঁপধরা সিঁড়ির প্রতি ধাপ।

হঠাৎ মঠাৎ আলো সাদা আবার কালো

পথ তো সর্পিল; হৃদয় নুপুর কোনদিকে?

সন্ধ্যার আলো মরে যাবার আশায়

শেষবার চুমু খাচ্ছে মাটির বুকে

নাড়িনক্ষত্রের বিজ্ঞান তুকতাক

আমাকে বাধ্য করছে লিখতে

কবিতা ছাড়া যে কোন সত্য এখন নেই

কবি  কোথায়,আমি কবি হতে চাই!

প্রতিষ্ঠান প্রেমী নয় ক্ষমতালোভী নয় 

পদ লেহন কবি নয়  কোন পক্ষপাতী নয়

সাত্ত্বিক নিজের মুখোমুখি সত্যের কবি।

অন্য কোণ

পাখি উড়ে যায়

ফেলে যায় পালক

মানুষ চলে যায়

রেখে যায় স্মৃতি

ঝরা পালক জাগে

স্মৃতির অ্যালবামে

মাঝে মাঝে বৃষ্টি হয়

বুকে অনাসৃষ্টি হয়।

পরিযায়ী 

কবে থেকে পরজীবি হয়ে
পরান্নভোজী জানা নেই
কবে কিভাবে কতটা ঠকলাম
ঠিক মনে নেই।

দীর্ঘ পথচলতি বেদনা
মাঝে মাঝে উঁইপোকার মতো
একটানা ক্রুরর ক্রুরর শব্দে
কুরে কুরে খায়।

কি পেলাম কি হারালাম
সে হিসেব নিষ্প্রয়োজন
প্রয়োজন শুধু বেঁচে থাকা
শুধুই বেঁচেবর্তে থাকা

সব পেয়েছির বেশে হেসে হেসে
এ মন বাউল হতে চায়
পাগল হতে চায় 

কান্না ভুলতে চায়।

প্রনব রুদ্র : গাজোল(বিবেকানন্দপল্লী), মালদা।

rudrakundu88@gmail.com

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: