বৃষ্টি মানে // বটু কৃষ্ণ হালদার

smritisahitya.com

বৃষ্টি মানে দাপিয়ে বেড়ানো সবুজ প্রান্তর, নদীর চরে কাদা মাখামাখিতে ফুটবল খেলা

আররাখাল গরুর পাল।

বৃষ্টি মানে আলো-আঁধারের খেলা, মায়ের কোলে মাথা রেখে আদর মাখানো

হারিয়ে যাওয়া শৈশবের মিষ্টি সকাল।

বৃষ্টি মানে গরম পেয়ালায় তৃষ্ণার্ত ঠোঁটের চুমুক,

চাল ভাজার সাথে ,মায়ের হাতে কুমড়ো ফুলের বড়া,

বৃষ্টি মানে নকশী কাঁথা গায়ে দিয়ে সহজ পাঠের পড়া।

বৃষ্টি মানে চাষি ভাইদের মহা আনন্দের আউল,বাউল গান

বৃষ্টি মানে ভাঙ্গা টিনের চালে কুকুর অপলক দৃষ্টিতে আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকা,

 আর মাতলা নদীর বুক চিরে বয়ে আসা ভাঙ্গনের আহ্বান।

বৃষ্টি মানে চাতকের অনাহুত মহোল্লাস, পরিযায়ী পাখিদের ভিড়।

বৃষ্টি মানে মেদুর কাঁথাতে, অবারিত অলস সুখের নীড়।

বৃষ্টি মানে উষ্ণ হৃদয়ে প্রাণের ছোঁয়া ভুবন ডাঙ্গার মাঠ।

বৃষ্টি মানে রাখালিয়ার করুন বাঁশির সুর, শেষের খেয়া পাড়ি দেওয়া,

চিতার শুকনো কাঠ।

বৃষ্টি মানে কাঁপা কাঁপা ঠোঁটে ভালোবাসার পরম অনুভূতি।

বৃষ্টি মানে খুব সহজে দুটি অচেনা হৃদয়ের জীবনের আত্ম স্মৃতি।

বৃষ্টি মানে গভীর ভালোবাসা বাঁধন হারা হয়ে আপনজনকে কাছে চাওয়া,

বৃষ্টি মানে মাঝ দরিয়ায় মাঝি-মাল্লাদের উল্লাসের গান গাওয়া।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *