মনুষ্যত্ব : রিমা চ্যাটার্জী

মানুষ,  কথাটির অর্থ ছোট থেকে জেনে এসেছি “মান” আর “হুঁশ ” যার বর্তমান। 

খুব গর্ব এই মনুষ্য জাতির নিজ আবিষ্কার নিয়ে,  খুব দম্ভ নিজের যোগ্যতা, আধিপত্য নিয়ে। 

কিন্তু  আজ বিংশ শতকে দাঁড়িয়ে নিজেকে মনুষ্য জাতির অংশ হিসেবে ভাবতে ভয়ানক ঘৃণা জন্মাচ্ছে…হ্যাঁ ঘৃণা জন্মাচ্ছে সেই সকল মানুষরূপী জীব দের উপর যারা নিজ ভিন্ন অন্য কোন জাতী বা জীবের অস্তিত্ব মানতে পারেনা এবং ফল স্বরূপ তাদের অস্তিত্ব বিলীন করতে উঠে পরে লাগে …কেউ সর্ব সমক্ষে আঘাত হানায় কেউ বা মিছরির ছুড়ি হয়ে। 

মানুষ আজ বিনাশের কোন খেলায় মেতেছে তা বোঝবার ন্যায় বোধ শক্তি কিংবা যোগ্যতা কোনটাই তার নেই…কিন্তু সেই খেলার আগুন যখন ছড়িয়ে পরে নিজের ঘর পোড়ে তখন দ্বারস্থ হতে হয় সর্ব শক্তিমানের কাছে….এবং বলা বাহুল্য তাঁর সাথেও সম্পর্ক একমাত্র দেওয়া নেওয়ার। 

আজ লিখতে বসে কোন একটা ঘটনাকে উদ্দেশ্যে করে কিছু বলতে চাই না কারণ ছোট থেকে যা কিছু অন্যায় অবিচার দেখে এসেছি সকল জীব, জাতির প্রতি এ তারই বহিঃপ্রকাশ। 

ঘটনার সূত্রপাত “নিয়ানডার্থালের” (Neanderthal) থেকে , যে প্রজাতি অবলুপ্ত করবার আগে মানুষ একবারও ভাবেনি শুধুমাত্র নিজেদের আধিপত্য বিস্তারের কারণে …

এবং সেই থেকে চলে আসছে তার এই মারণ খেলা আজও।।

 আজ একটার পর  জাতি, জীব বিলুপ্তির পথে শুধুমাত্র মনুষ্য জাতির আমোদ প্রমোদ আর প্রসাধনের সামগ্রীর জোগাড়ের কারণে ।

পৃথিবীতে “হাতির দাঁত, বাঘ মেরু ভাল্লুক  কুমির এর চামড়া, কড লিভার অয়েল, এক শৃঙ্গ গন্ডার এর শৃঙ্গ” এসবের খুব চাহিদা মানুষের বিলাসিতার কারণে…যদিও সরকার দ্বারা অবৈধ হবার পরেও চোরা চালানের কোন খামতি নেই..তাই মানুষের চাহিদা পূরণে একে একে অবলুপ্তির পথে এই সকল জাতি প্রজাতি,সাথে মৌমাছি থেকে শুরু করে সঁজারু।

আচ্ছা একটু ভেবে দেখবেন তো সত্যি কি আমাদের কোন অধিকার আছে নিজেদের জন্য এই সকল প্রাণীর থেকে বেঁচে থাকবার অধিকার কেড়ে নেওয়ার? শুধু এরা কেনো…ওই যে সকল মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে কিছু মানুষরূপী জীব  নিজেই..শুধুমাত্র নিজস্ব ভোগবিলাসিতার , চাহিদা মেটানো,  আধিপত্য বজায়, নিজ সুবিধার্থে ? কোন অধিকার আছে ? 

কেউ জাতির নামে মারছে, তো কেউ ধর্মের , কেউ লিঙ্গের নামে মারছে তো কেউ পণের নামে, কেউ বদলার নামে মারছে তো কেউ ভালোবাসার, কেউ বর্ণের নামে আঘাত হানায়, তো কেউ সংস্কার এর নামে !!

প্রকৃতির দান আমাদের এই অদ্ভুত অপরাজেয় মস্তিষ্ক, যার উপর দ্বায়িত্ত ছিল এই পৃথিবীর রক্ষার, কিন্তু আমরা কি করলাম পৃথিবীরসমস্ত সৃষ্টি ,প্রকৃতির সমস্ত দান নষ্ট  করে ভারসাম্যহীন করে তুললাম….আর তার ফল স্বরূপ বিনাশের সময় সব কিছুর দায় ভগবানের উপর দিয়ে নিশ্চিত হবার চেষ্টা। 

বাহঃ রে মনুষ্যজাতি বাহঃ !!

তবুও বলবো এখনও কিছু মানুষ আছেন যারা একটু হলেও নিজেদের মধ্যে মনুষ্যত্ব বজায় রেখেছেন , তাদের কুর্নিশ জানাই,  অনেক ভালোবাসা তাদের প্রতি, বেঁচে থাকুক সেই সকল মানুষ যারা এখন রাস্তায় সারমেয় দেখলে মুখে খাবার তুলে দিতে পিছপা হন না, আশ্রয় দিতে পারেন অবলাদের নিজ জীবনে, ভালোবাসতে পারেন নিজের মতো করে, উদ্ধার করেন কোন দুর্ঘটনা থেকে । 

ভালো থাকুন সবাই , আর ভালো থাকতে দিন সকলকে প্রকৃত অর্থে,  নিজ নিজ ইচ্ছায় বাঁচতে দিন সকলকে, এবং পারলে একটু হলেও সংবেদনশীল হন অন্যের প্রতি ।

ফেসবুক মন্তব্য

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: