মরুছায়া // শ্যামল কুমার রায়

1231

পুড়ছি একলা মনের কোণে

 এক অদৃশ্য দহনে।

 নীরবে পোড়া ছাইগুলো যে বড্ড ভারী!

 বিশাল এ পৃথিবীতে আমার সবার সাথে আড়ি

 আমার বিশ্বাসে সবাই রেখেছে ‘একমুঠো ছাই’

 চাই না বাঁচতে আমি অন্যের ‘নিঃশ্বাসে’

 বড় একলা আমি ‘অবৈধ বিশ্বাসে’।

 একা একা লড়াই করে

 ক্ষত বিক্ষত আজ।

 তীব্র দহনে তুমি এলে চড়িয়ে

 শান্তি সুধা সাজ।

 তপ্ত জীবন শান্ত হল তোমার মাঝে

 আগামীতে পথ চলা তাই ভীষণ বুঝেসুজে!

 আমার বেদনায় সমব্যথী তুমি

 আমার যাত্রায় সহযাত্রীও তুমি।

 বন্ধু হও বলেই শঙ্কায় থাকো

 শঙ্কিত হয়েই বাধা দিতে আসো।

 আমার সামনে বাধার মহীরুহও তুমি

 নিশ্চিত না হয়ে কখনও পথ ছাড়োনি।

 অথচ অন্য বাধার পাঁচিল ডিঙোতে

 বাড়িয়ে দিয়েছো হাত

আমার নবজন্মের তুমিই ভগীরথ।

আমার সব কলঙ্কের কলঙ্কিনী তুমি

আমি ‘কাজল’ আর তুমি কলঙ্কিনী।

প্রদীপের শিখার ঔরসজাত আমি কাজল

আর কলঙ্ক, তুমি চোখের কোণে রাই বিনোদিনী।

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: