যুদ্ধ কি এড়ানো যায় // রণেশ রায়

রণেশ রায়


কখনও ঘোষিত কখনও অঘোষিত যুদ্ধ
জড়িয়ে থাকে জীবন অন্ধকার তমসায়
রক্তাক্ত রক্তহীন লাশ পড়ে থাকে এধার ওধার
যুদ্ধ কি এড়িয়ে যাওয়া যায়?
তাও এড়াবার চেষ্টা করি, পালিয়ে বেড়াই।


কিন্তু পালানো কি যায়?


যদি কখনও বারান্দায় বসি নির্বিকার
ধড়হীন কে যেন পাশে এসে বসে,
জানতে চায় কেমন আছি,
আমি বোবা হয়ে তাকিয়ে
কোথাও কেউ নেই কাছে
কবে যেন দেখেছি তাকে পূর্ণ অবয়বে
আজ চিনি না তাকে
আমি বসে নীরবে।


বাজার করে বাড়ি ফিরছি
কে যেন পেছনে তাড়া করে
এই বুঝি ঝাঁপিয়ে পড়ে
আমি তাকাই পেছনে
কেউ নেই সেখানে
তাও কে যেন আমার মননে।


খিদে পেয়েছে কিছু খাব
দোকানে ঢুকি
কে যেন আমার দিকে তাকিয়ে
ক্ষুধার্ত দুটো চোখ
অনশনে কতদিন!


বাড়ি ফিরি সন্ধ্যে হলে
কন্যা আমার শুয়ে
যুদ্ধ বিধস্ত সে
অপমান অসন্মানে গুমরে মরে
বাতাসে খবর ভেসে আসে।


রাতে জানলা খুলে আকাশে তারা গুনি,
কোথায় সে সত্য ধ্রুবতারা?
কালপুরুষ নেই পাহারায়
যুদ্ধের বিচরণ নক্ষত্রের সভায়,
কখনও ঘোষিত কখনও অঘোষিত
আমি বসে নির্বিকার নিরালায়
কিন্তু যুদ্ধ কি এড়ানো যায়?


Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *