শুধুই বাঁচতে দাও — সুকান্ত মজুমদার, বহরমপুর, মুর্শিদাবাদ।

শুধুই বাঁচতে দাও -- সুকান্ত মজুমদার, বহরমপুর, মুর্শিদাবাদ।

জীবন!

তোমার চোখে জল

স্বজনপরিজন হারিয়ে তুমি কাঁদছ?

কান্নাজল গড়ে পড়ছে দেখো

বিশ্ববাসীর চিবুক ভিজিয়ে

সবাই আপন হয়ে পড়ছি পরিচয় ভুলে

ভুখন্ডের জটিল মোহ ছাড়িয়ে।

সীমানা কখনো ভাবেনি, ভাবেওনা

তোমারআমার সাদা কফিন

কিংবা চিতার আগুন কিছুতেই। 

ফাগুন মন উদাস হয়না

সে তেমনি ফুল ফোঁটাবে প্রতিক্ষণ 

সেতো সময় মাত্র, উদাস হয় আমরা সাধারণ মানবিক সত্তা মনন

ছুটছি তো ছুটছি অপ্রতিরোধ্য 

অহংকারী গতি এমনিই কিছু ভালোবাসে

পতিত হবার পাড়ে, এবার বলবো হয়ত

থামিনা একটু,কিসে মৃত্যু হয় কাম্য 

তা ভুলে, ভাবি বাঁচবো কিসে

এই দ্যাখো খুলে ফেললাম সুখের পোশাক, ছুঁড়ে ফেললাম প্রমোদ বাঁশি

ওদের অচৈতন্য মনে মৃত্যু ঘুমিয়ে

গরল গরিমায় আছন্ন মোহিত হাসি। 

জীবন

ভেতরের এক অন্য আমিতে বলছে

তোমার যৌলুস, উল্লাস এবং বুদ্ধিজ্ঞান

সব কেড়ে নাও, তা যদি মহামারী হয়

কিচ্ছু চায়না, শুধুই বাঁচতে দাও

একরোখা আধুনিকতার সুশোভিত মন

বারুদ আর বৈভবের প্রতিযোগিতা 

আর কিছু সমষ্টির আত্মতুষ্টির খোরাক

মসনদ আর মৃত্যু সমৃদ্ধির দাবানল লেহন।

জাতি, বর্ণ, শ্রেণী সবি অস্পষ্ট

মৃত্যু প্রতিচ্ছবির রক্তিম ক্যানভাসে,

চিন্তন খন্ডিত পৃথিবীর নাগপাশে। 

কেউ যেন আর কপোট আছিলায়

চালকের তৃষ্ণার্ত ওষ্ঠে শুধু না হাসে,

তোমার আমার কান্না, মৃত্যু বিভীষিকা

প্রত্নতাত্ত্বিক মৃত্তিকায় লেগে আছে

জীবন ধারণের সংগ্রামী ইতিবৃত্তে

আদিম গুহায় যেন এখনো জীবিত সে মন

আজ জীবন যাপনের অট্টালিকায় 

অন্যরূপে, ভিন্নসাজে আধুনিক চিত্তে।

বলিনা, আর এভাবে নয়,’কোরোনানা

ভবিষ্যতে আর অন্য নামেরো না

বাঁচতে চায় সে ভাবেই,যেভাবে শান্তিময়

যেভাবে আমরা মানুষ হয়ে মানুষ চিনেছি

আমি তুমি সব্বাই একসূত্রে এমনি

একে অন্যের জন্য বাঁচতে শিখেছি

আমরা আমাদের জন্যই বহুক্লেশে

সহজ জীবন ভরা পৃথিবী পেয়েছি। 

ফেসবুক মন্তব্য

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: