শ্যামল কুমার রায় এর কবিতা

শ্যামল কুমার রায় এর কবিতা
ফেরানো যাবে না
———————
শ্যামল কুমার রায়
চলতে চলতে আজ থমকে গেছে
অনেকের পথ চলা।
শুধু থমকে দাঁড়ালো না,
সময়ের পথ চলা!
স্মৃতির সরণি বেয়ে
অতীতের নিত্য আনাগোনা
আসে যায় আর রেখে যায়
ক্লান্তিকর অতীতের কত কথা
ব্যর্থতার ইতিবৃত্ত আর অসহিষ্ণুতা।
মনের গভীরে বিরাট ক্ষত!
এত ভেবেও ফিরবে না
সেই সব ছোট ছোট ভালোলাগা
ভালোবাসা আর মিথ্যে আপন ভাবা।
আপন ভেবেই ছুটে চলা,
চরম নির্বুদ্ধিতা!!!
পরখ করে না দেখার নির্বুদ্ধিতা
সারল্য আর অন্ধ বিশ্বাসের অপমৃত্যু।
মুষল পর্বে যারা অত্যন্ত দক্ষ
তারাও আজ কালের নিয়মে রিক্ত
মেকি অসাড় আপনজনদের ভিড়ে।
শুধু ফিরবে না মুষল পর্বে হারানো সম্মান
অজস্র সুখী সুখী ভাব
কলহে কাটানো মধুমাখা দাম্পত্য
শৈশবের সারল্য ন্যুব্জ অপ্রেমে।
প্রখর স্মৃতি কেনো হারায় না সঙ্গমে?
লোভাতুর মন চেয়ে থাকে অলীকের পানে।
————————————

আধুনিক কবিতা
শ্রেণি গদ্য কবিতা

ধোঁয়াশা
————
শ্যামল কুমার রায়

 মিথ্যে সম্পর্ক, মিথ্যে অভিমান
মিথ্যে যত কাছে থাকার ভান
এর চেয়ে ঢের ভালো-
একা একা থাকা,
না-মানুষদের সাথে তফাৎ বজায় রাখা।
পোষাকী সম্পর্ক, পোষাকী নাম
সম্পর্কের মাঝে বিস্তর ব্যবধান।
ভুল, সব ভুল – আপন ভেবে রাখা
স্বার্থের দুনিয়ায় মানুষ বড় একা।
        —————————–
         করোনা
         ———–
  শ্যামল কুমার রায়।

করোনা এবার দিচ্ছে ডাক
মানব সভ্যতা নিপাত যাক।
সচেতনতা ভাই উঠছে গড়ে
করোনা তাই যাচ্ছে সড়ে।
সভ্যতার আজ চরম সংকট
স্বার্থপরতা হচ্ছে প্রকট।
ছুটছি সবাই নিজের তরে
রসদ মজুত নিজের ঘরে।
আতঙ্ক আজ বড়ো পুঁজি
কালো বাজারির সুযোগ খুঁজি।
আর্ত অসহায় রইলো পরে
দিন মজুরিতে পেটটা ভরে
মৃত্যু মিছিল খবর করি
আরোগ্য সব আড়াল করি।
প্রভু তুমি দাওগো মেরে
মনুষ্যত্বহীনতা চিরতরে।
—————————-
জামালপুর,
২০|০৩|২০২০

জামালপুর
০২/০৪/২০২০
শ্যামল কুমার রায়
জামালপুর,
পূর্ব বর্ধমান
পশ্চিমবঙ্গ
পিন: ৭১৩৪০৮

Published by Story And Article

Word Finder

Leave a Reply

%d bloggers like this: