স্বার্থমুক্ত বসুন্ধরা – ছন্নছাড়া

নিজের স্বার্থে লাগলে আঘাত সবাই প্রতিবাদ করে, 

লোকের স্বার্থে আঘাত হলে প্রতিবাদ করতে কজন পারে?

.

লোকের বিপদ হলে পরে, দুরে যখন থাকছ তুমি সরে,

নিজের বিপদ হলে পরে, সাহায্য তাদের আশা কর কি করে? 

.

প্রতিবেশী হয়ে থাকছি সবাই বৃহৎ জগৎ জুড়ে, 

পরের বিপদ হলেও তবু কেন থাকা আপন ঘরে?

.

তোমার ঘরে বিপদ এলে তারাও দরজায় দিলে খিল!

বুঝবে সেদিন, এ জগৎে একা বাঁচা কতটা মুসকিল!

.

পরের তরে করলে সে কাজ বুঝবে তুমি পরে,

তোমার বিপদ আসলে তারা যাবে না কো দুরে।

.

বলতে পার সবাই যদি তোমার মত না হয়? 

হোক্ না তারা তাদের মত, পরেও হবে সময়।

.

একটা সময় পরে তবু বুঝবে যখন তারা

তোমার স্বপ্ন পূরণ হলে হবে আত্মহারা। 

.

নিজের নিজের করছ মিছে, কিছুই নিজের নয়,

আজকে যেটা লোকের বিপদ কালকে যদি তোমার হয়!

.

তোমার মত সবাই যদি থাকে এমন মুখ ফিরিয়ে,  

“স্বার্থপর”- বলবে না তো সেদিন তুমি মুখ বেঁকিয়ে?

.

তাই তো বলি স্বার্থ ভুলে পরকে আপন করো,

আপন ভাই এর মত করে জড়িয়ে তুমি ধরো।

.

ভেদাভেদির দ্বন্দ ভুলে নতুন পৃথিবী গড়ো, 

মনের কষ্ট ভুলে সবাই আনন্দেতে ভরো।

.

পরের জন্য স্বার্থত্যাগে মিলবে যতেক খুশি,

নিঃস্ব হলেও অন্তর তোমার ভরবে সে যে অহর্নিশি। 

.

তোমায় দেখে আর দুটো লোক স্বার্থ যদি ছাড়ে-

তাদের দেখে আরও দুজন,এমনভাবে সবাই এক এক করে,

.

স্বার্থ ছেড়ে সবাই যদি পরের তরে ভাবো

বাঁচার মানে অন্য হবে, বলবে সবাই ‘ ব্রাভো!’

.

তবেই হবে গড়া আগামীর তরে সুন্দর বসুন্ধরা।

স্বার্থমুক্ত পৃথিবী ——স্বপ্ন দেখে কবি ছন্নছাড়া।।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top