হৈমন্তীকা // সুব্রত মজুমদার

হৈমন্তীকা  //  সুব্রত মজুমদার
এতদিন ধানশীষে চুপচাপ শিশিরেরা পড়ছিল ঝুপঝাপ বোঝেনি কেউ তো আসবে।
এই মেয়ে আজ এলি সে শিশির মেখে নিলি তোর ছোঁয়ায় এই মাঠ জাগবে।।
ঐদিকে রৌদ্রের হরতাল কুয়াশার কু-আশায় বেসামাল হাজার মানিক যেন ঝরছে;
তোর হাতে রেখে হাত ধানের সবুজ পাত হৈমন্তী ভৈরবী ধরছে।।     
ঐ দূরে শালেদের জটলায় শিশিরেরা টপটপ টপকায়, বনময় শিহরণ লাগলো
ঘাঁসে বসে চঞ্চল উচ্ছ্বল বিহ্বল ঘাঁসফড়িং এর ডানা জাগল।।
পুবদিক  রাঙিয়ে প্রানে সাড়া জাগিয়ে ক্ষীনরেখা ঐ দেখা যায় রে
ভাঁপ ওঠা দীঘি তে কালো জলে এ শীতে বাতাসের নিঃশ্বাস পাই রে।
দলবেঁধে বালি হাঁস কাটাইছে পরবাস কলকল অবিরল ডেকে যায়
জাগধরা চাদরে পেয়ালার আদরে কবি মন কল্পনা পেয়ে যায়।
হয়তো বা এরপরে কোলাহল নেবে কেড়ে সুপ্তির সুখভরা অবকাশ;
দ্বারকার বুক বেয়ে নির্জনে নির্ভয়ে খেলাকরে যাবে যত বালিহাঁস।
আবার দিনের পরে পেঁচাডাকা রাত্তিরে স্বপ্ন বালিকা সুর ধরবে,
আগামীর আয়োজনে নদীতীরে একমনে শিশিরের স্নেহকণা ঝরবে।।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *