প্রেমিকের মনোলগ – অভি চক্রবর্তী

কথা ছিলো কথা হবার, অনেক্ষন ধরে কথা হবার …কথা ছিলো আবার দেখা হবার। চোখে চোখে কথা হবার। বারান্দায় বসে কথা ছিলো চায়ের চুমুক, ধোঁয়া ওঠা কাপে একাকার স্মৃতিগুলো খুলে খুলে দেখার। স্মৃতি আসলে হোমিওপাথিক পুরিয়ার মতো, মিষ্টি খেতে …অসুখ সেরে যায়, কিন্তু প্রথমে খানিক বারে অসুখ। স্মৃতি আমাদের ভিতর মেলানকলির ময়নাকে খুঁচিয়ে দেয়। ময়না ডাকে।Continue reading “প্রেমিকের মনোলগ – অভি চক্রবর্তী”

পাশে থেকো – ড.মহীতোষ গায়েন

পৃথিবীতে সন্ধ্যা নেমে এলো…স্বাধীনতা অলস মন্থর গতিতেএগিয়ে চলে সমস্যাবহুল উপত্যকায়;অদ্ভুত এক অন্ধকার নেমেছে সভ‍্যতায়… সবুজের সমারোহে ঢুক পড়ে কালো ছায়ানির্জন প্রকিতির কোলে সময়-হৃপৃণ্ডের গতি মাপি,পিছনে জীবন-বৃক্ষ,সামনে সুদূরপ্রসারী পথ,তোমরাও মানুষের পাশে থেকো অনন্ত।

ধৈর্যশক্তি – শর্মিষ্ঠা গুহ রায়(মজুমদার)

সর্বজনে কহিনু মোরা,ধৈর্য রাখিও শান্ত মনে,ধৈর্য যে কি বিষম বস্তু,যে রাখে,সেই তা জানে। হস্তে তাহা নয় ধারণযোগ্য,থাকেও না সে বাহুডোরে,নিজগুণে বন্ধ রাখিওশক্ত আঁটুনি বন্ধ মনের ঘরে। মনের ঘরে তবুও থাকেকোথাও খোলা জানালা,তাহা দিয়া কেমনে সে যেকহে খালি ‘পালারে পালা’। তবুও কেহ মনের জোরেআটকাতে তারে পারে,সেই তো হয় বীর মহীয়ানবিপদভরা এ সংসারে।