জয় হোক জীবনের – শম্পা সাহা

[post-views] .

আমার চেহারা নিয়ে আমি কখনো মাথা ঘামাই না
জানি কালো হলে লোকে কালো তো বলবেই
ফরসা হলেও নিশ্চয়ই আমার চেয়ে বেশি ফরসা কেউ আছে
সুন্দরী টিকোলো নাক হলেও
আমার চেয়ে সুন্দরীর তো অভাব পৃথিবীতে নেই
ছিলোনা কখনো
মোটা হলে কেউ বলবে, “জলহস্তী”
রোগা হলে, “শুঁটকি”
চোখ বড় হলে, “ড্যাবা ড্যাবা”
ছোট হলে, “কুতকুতে”
স্মার্ট হলে, “বাবা, বড় ঢং! “
ঘরোয়া হলে, “গেঁয়ো! “
তাই আমার আচার আচরণ নিয়েও
আমার কোনো মাথা ব্যথা নেই
যদিও জানি আমার রং করা চুল
জিন্সেও আপত্তি কারো কারো
শাড়িতেও নিশ্চয়ই অন্য কারো হতো
“ব্লাউজটা বড্ড বেশি পিঠ কাটা! “
“শাড়ি কতো নীচে পরা, নাভি দেখা যাচ্ছে”
“চুড়িদারে মানায় না মোটে”
বলার লোকের ও অভাব নেই
চোখ, ঠোঁট, লিপস্টিকের রং নিয়েও মেহফিল সাজানোর লোকের তো
অভাব দেখিনা চারিপাশে
বিয়ে না হলে, “এ মা, এখনো আইবুড়ি! নিশ্চয়ই দোষ আছে”
তাড়াতাড়ি বিয়েতে, “বিয়ে পাগলা, অসভ্য”
জানি আমাকে নিয়ে সবার, সবার মাথা ব্যথা
তাই ও নিয়ে আর অযথা আমি মাথা ঘামিয়ে কি করবো?
বরং করুণা করি তাদের
যাদের নিজের দেবার সময়টুকু ও অপরকে দিয়ে
নিজের অসুখী  জীবনে খুঁজে নিতে চায়
পরনিন্দা পরচর্চার সহজ মনরঞ্জন
না, তাদের উপর রাগ নয় করুণা হোক
যারা অপরের সমালোচনায় করে নিজের জীবনের
আনন্দ উপভোগ
এক বিসম, বিকট, ধূসর, নৈঞ্অর্থক
আনন্দ উপভোগ
তাদের জন্য এক মুহুর্তের দুঃখ নয়, নয় কোন শোক
বরং শত্রুর মুখে ছাই দিয়ে
আমি আমার কালো মোটা লাল চুল থ্যাবড়া নাকে
করি চূড়ান্ত জীবন উপভোগ
জীবনে আমার বাঁচবার জয় হোক।

জীবনের আরবার জয় হোক।

.

আপনার মতামত এর জন্য

শম্পা সাহা

Leave a Reply