জ্বালো আলো – শম্পা ঘোষ

 

 

চারপাশের আঁধারটা ক্রমশ হচ্ছে গাঢ় থেকে গাঢ়তর।
একটা অন্ধকার গুহায় যেন হয়েছে ঢোকা –
তুমি আমি আমরা সবাই এখানে করেছি প্রবেশ ।
কেমন যেন একটা গা গোলানো পরিবেশ এখানে এই অন্ধকারের রাজত্বে –
আলো নেই – আলো নেই – কোত্থাও আলো নেই –
গুহার মুখের কোন ফাঁক ফোঁকর দিয়ে আসছে সামান্য কিছু চোয়ানো আলো ।
সেই আলোতে ওই গুহাতে তৈরি হয়েছে একটা আলো আঁধারি পরিবেশ –
গুহায় ঘুরে বেড়াচ্ছে সব যেন প্রেতাত্মার দল !
একে ওপরের মুখ পাচ্ছে না দেখতে ।
কেবলই অনুভবে যাচ্ছে বোঝা ।
সেখানে থিক থিক করছে ভীড় –
নিঃশ্বাস নিতে হচ্ছে কষ্ট ।
সবাই খুঁজছে হাতড়ে হাতড়ে আলোর পথটাকে।
সবাই চাইছে এই ঘন অন্ধকারের থেকে মুক্তি পেতে।
একটু আলোর দরকার –
একটু আলোর আছে দরকার ।
ঐ আলোর পথেই পাবে সবাই মুক্তি –
ফেলবে সবাই মুক্তির নিঃশ্বাস  ।
শ্বাসরোধকারী এই পরিবেশের সৃষ্টি করেছি তো আমরাই ।
এখন আমরাই পড়েছি আমাদেরই পাতা ফাঁদে ।
এই ফাঁদের জাল কেটে বেরিয়ে আসতে পারলে তবেই তো মিলবে মুক্তি ।
তবেই তো পাবো মুক্তির আলো ।
যদি এখনও বাঁচার ইচ্ছা হয় প্রবল –
তবে ভাঙতেই হবে ওই গুহার মুখ –
ভেঙে বের হলে পাবো আলো ।
নতুন করে বাঁচার দিশা দেখাবে ওই আলো –
ওই আলোকে দিশারী করে এগিয়ে যেতে হবে সামনের দিকে –
খুঁজে নিতে হবে নতুন পথের ঠিকানা ।
পিছনে পড়ে থাকুক ওই কালো কুৎসিত অন্ধকার!
জ্বালো আলো – জ্বালো আলো ।
আলোয় আলোকিত হোক পথ ।

নতুন পথে নতুন করে চলতে শুরু করি আমরা ।

Shampa Ghosh

Leave a Reply