Maitrayee sinharay

রোজনামচা
সুখবর
মৈত্রেয়ী সিংহরায়
23.09.2021

অমরেশ বেশ ভোরেই উঠে পড়েছেন। বহু দিনের অভ‍্যাস। প্রতিদিন অফিস যেতেন সকাল সাতটার বর্ধমান লোকালে। লকডাউনে চাকরিটা চলে গেছে কিন্তু অভ‍্যাসটা রয়ে গেছে। ছোট কোম্পানি কতদিন আর বসিয়ে বসিয়ে মাইনে দেবে!
ছেলেটার ব‍্যবসাও ঠিক মতো চলছে না।
বিক্রিবাটা নেই। অথচ অনেক টাকা লোনের বোঝা। খানিকটা অস্থিরভাবেই পায়চারি করছিলেন। দেখলেন পুত্রবধূ পলি উঠে পড়েছে। রান্নাঘরে চায়ের জল চাপিয়ে
হঠাৎই অমরেশকে বলে —- “বাবা ইলিশ মাছ আসছে বাজারে?”

  অমরেশ হঠাৎই চমকে যান। বলেন “অনেকদিন তো বাজারে যাওয়া হয়নি। কেন মা খেতে ইচ্ছে করছে?”
পলি সঙ্গে  সঙ্গে বলে—-” না না বাবা। বর্ষাকাল তো তাই জিজ্ঞাসা করছিলাম আর কি!”
অমরেশ মনে মনে বলেন দাম যে অনেক রে মা। কতবার গেছি কিনতে!  ইলিশ মাছগুলোর দিকে তাকিয়ে থেকেছি!  দাম শুনে কেনবার সাহস হয়নি। ছেলের বউটি ভারি মিষ্টি। দু’বছর হলো বিয়ে হয়েছে।

         পরমা সকালবেলাতেই স্নান সেরে পুজো সেরে নেন। ওদের কথাবার্তা কানে গেছে কিন্তু না শোনার ভাণ করে ছিলেন।
সংসারের যা অবস্থা! তার ওপরে জিনিসপত্রের দাম আকাশছোঁয়া। রোজ
এক চিন্তা কি রাঁধবেন! দু’দিন ধরে বেসন বড়ার ঝাল রেঁধেছেন। ছেলেটা আজ আর খেতে চাইবে না।
অমরেশ ঘর থেকে বললেন ” পরমা আজ একটু বাজারে যাব ভাবছি। ব‍্যাগ দাও। ”
বাজারে গিয়ে যে ছেলেটির কাছে মাছ
কেনেন তার  কাছে দাঁড়ালেন—–
” শেখর ইলিশ মাছ কত করে কেজি ভাই।”
—–“দাদা আজ তো পনেরশো টাকা কেজি যাচ্ছে। অনেকদিন পর এলেন! কি ব‍্যাপার
শরীর খারাপ নাকি?”—বলতে বলতেই অন্য
খদ্দের এসে হাজির। অমরেশের মাথায় হাত। মেয়েটার মনে হয় খেতে ইচ্ছে করেছে।বললেন—“পাঁচ ছ’শো গ্রাম ওজনের দাম নিশ্চয়ই একটু কম হবে। আমাকে আড়াইশো গ্রাম দাও। সঙ্গে আড়াইশো গ্রাম বাটা মাছও দিও।”
বাড়িতে এসে চুপিচুপি পরমাকে বললেন —-“মেয়েটাকে একটু ইলিশ মাছ করে দিও। আমাদের জন‍্য বাটা মাছ এনেছি।” তারপর রসিকতা করে বললেন— “কি ব‍্যাপার ঠাকুমা হচ্ছ নাকি!”
পরমারও চোখেমুখে বিস্ময়। কিছুক্ষণ
পর যাতে সবাই শুনতে পায় সেই স্বরে বললেন—- “শুনছ, আমার গায়ে খুব আ‍্যলার্জি বেরিয়েছে।  আমি ইলিশ মাছ খাব না। হলুদ পাতা দিয়ে বাটা মাছের ঝাল রাঁধছি। তুমি খাবে?”
অমরেশও বেশ জোরে জোরে বললেন—–“তুমি না খেলে আমি খেতে পারি! আমাকেও বাটা মাছ দিও। জমিয়ে
রেঁধো কিন্তু।”
পলি সবটা বুঝে চুপ করে যায়। আজই মা বাবাকে সুখবরটা দেবে ঠিক করে।
ওদের রোজনামচায় এই ভালোবাসাটুকু থাক….💖💖💖💖💖

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *