prokash Chandra Roy

এই তো সেদিন

প্রকাশ চন্দ্র রায়

এই তো সেদিন চৌচির চৈত্রের কাঠফাটা রৌদ্রে,
বড়’রা যখন কর্মক্লান্ত দেহমন জুড়াতে ব্যস্ত
বুড়ো বটের শীতল ছায়ায়;
কৃষাণেরা বুকফাটা তৃষ্ণা মিটাতে উর্দ্ধশ্বাসে ছুটছে
আপন আপন ঘরের দিকে।
চাতকের আর্তচিৎকার শুনেও শুনছে না
মেঘহীন নিষ্ঠুর আকাশ!
কানামাছি-বউছি- ডাংগুলি খেলা শেষে,
ঝাঁপিয়ে পড়লাম দুজনে তপ্ত দুপুরে-
উত্তপ্ত পুকুরের জলে।
পরণের ধূলি-ধূসরিত নগণ্য আচ্ছাদন দুটিও
খুলে রেখে পাড়ে;
নিঃসকোচে নির্দ্বিধায় দিগম্বর-দিগম্বরী রূপে।
চিৎ-সাঁতারে-ডুব-সাঁতারে
একে অপরকে ছোঁয়ার খেলায় মত্ত।
এই তো সেদিন এই তো!
ভেজাদেহে দেহ রেখে আবেগভরে বলেছিলে দিগম্বরী,
একদিন নীল-পাঞ্জাবী আর নীল-শাড়ী পরে,
বর-কনে সাজবো দু’জন।
নীল-শাড়ীতে আজ নীলপরী তুমি,
আমিও তো নীল-পাঞ্জাবী পরিহিত নীলোৎপল;
দু’মেরুতে বসে দু’জনেই,
অহর্নিশি ভাবছি একে-অপরের কথা,
আহা ! কেন অযথা বড় হতে গেলাম,
কেন হারালাম সেইসব দিন!
এই তো সেদিন দিগম্বর ছিলাম আমি-
তুমি ছিলে দিগম্বরী।
এই তো সেদিন!
চেম্বার-০৯-০৮-২০১৯

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *