Ratan Basak

শিরোনাম – ” যুদ্ধে সবাইকে এক হয়ে এগিয়ে আসা উচিত । কোন মত বিরোধ থাকা ঠিক নয় । ”
লেখক – রতন বসাক

রাজনীতি সম্বন্ধে আমি খুব একটা ভালো বুঝি না, সেটা আগেই বলে নিচ্ছি । তবে রাজনীতি মানে যা হওয়া উচিত ও আমি যা মনে করি, সেটাই এখন বলব । আমার মতের সাথে অনেকের মত, নাও মিলতে পারে ।

বিশ্বের প্রত্যেকটা দেশেই কোনো না কোনো রাজনৈতিক দলের আধিপত্য আছে অন্যান্য অনেক রাজনৈতিক দল থাকা সত্বেও । একটি মাত্র দল সর্বচ্চো ভোটাধিকারের ( পুরো দেশের সব মানুষের মতের ভিত্তিতে নয় কিন্তু ) ভিত্তিতে দেশ পরিচালনা করে আর বাকি দলগুলো বিরোধিতার কাজ করে । এটা আমরা সবাই জানি । এটাও দেখা গেছে যে ক্ষমতাশীল রাজনৈতিক দল যে কাজই করুক না কেন, বিরোধী দলগুলো তার বিরোধিতা করবেই । এর কারণটাও প্রত্যেকটি শিক্ষিত ও বুদ্ধিদীপ্ত মানুষই বুঝতে পারেন, সেটা আর বলার প্রয়োজন মনে করিনা ।

আমার কথা হল প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলের প্রধান উদ্দেশ্য হল মানব সেবা করা । দেশের মানুষ যাতে সব সুযোগ সুবিধা পেয়ে ভালো ভাবে সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যে থাকতে পারে তার ব্যবস্থা করা ও বিদেশী শত্রুর আক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করা । এটা চিরন্তন সত্য যে কোন ভালো কিছু, সবার কাছেই সেটা ভালো হয় । তবে যদি কিছু মতবিরোধ দেখা দেয়, তখন সেটা আলাপ-আলোচনা করে ভালোর দিকে নিয়ে যাওয়া যায় ।

তাই একটা দেশে এতগুলো রাজনৈতিক দলের কি প্রয়োজন আছে ? আমি তো সেটা বুঝে পাইনা । সবার উদ্দেশ্যই যখন মানব সেবা । তখন সবাই মিলে একটা দল গড়ে, কেন দেশের পরিচালনা করা হয় না ? এতগুলো দল থাকার জন্য এক দল আরেক দলের উপর হিংসা বিদ্বেষ করে তাতে সাধারণ মানুষেরই ক্ষতি হচ্ছে, সেটা সবাই দেখতে পাচ্ছি ।

আজ বিশ্ব তথা দেশ এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে চলছে । অদৃশ্য এক শত্রুর আক্রমণে সবাই দিশেহারা । বলা যায় এক নতুন ধরণের বিশ্ব যুদ্ধ চলছে । যারা এই যুদ্ধে প্রথম সারিতে শত বিপদ উপেক্ষা করেও লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন ।তাদেরকে অনেকেই আবার পছন্দ করছেন না ও তাদের ওপর অমানবিক অত্যাচার চালাচ্ছেন । জানিনা মানুষ কেন নিজের ভালো বোঝে না ।

এখন যে অঘোষিত যুদ্ধ চলছে, সেই যুদ্ধে জয়লাভ করতে হলে প্রত্যেকটি মানুষকেই ঘরে গৃহবন্দী হয়ে থাকতে হবে । তবে আর্থিকভাবে সচ্ছল মানুষদের খুব একটা অসুবিধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে না । মুশকিল বা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে সেইসব বেশিরভাগ মানুষদের, যারা দিন আনে দিন খায় । আর কতদিন নিরুপায় হয়ে কর্মহীন ভাবে ঘরে বদ্ধ থেকে কাটাবে ?এটা একটা কঠিন বাস্তব প্রশ্ন সবার কাছে ?

সরকারের তরফ থেকে সাহায্য ও ত্রাণের সামগ্রিক দেওয়া হচ্ছে । এছাড়াও অনেক বিত্তশালী ও উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন মানুষেরা আর্থিক দানও করে চলেছেন । কিন্তু একটা বড় প্রশ্ন হল যে, সেই সব মানুষেরা কি সত্যিই এইসব ত্রাণের সামগ্রী পাচ্ছে ?যাদের সত্যিকারের প্রয়োজন আছে । কিছু স্বার্থ লোভী মানুষ এখনও অন্যায় করে চলেছে সুযোগ পেয়ে । তাদের বলি সবাই যদি না বাঁচে ; তাহলে আপনি কি একা সারভাইভ করতে পারবেন সম্পত্তি নিয়ে এই জগতে ? আমি মনে করি ভিন রাজ্যের মানুষেরা পায়ে হেঁটে এই বিপদের সময় এতটা রিক্স নিয়ে বাড়িতে ফেরার চেষ্টা করত না ; যদি তারা থাকা-খাওয়া-অর্থ সঠিক ভাবে ও সঠিক সময়ে পেত ।

তাই আসুন এই মহা বিপদের সময় আমাদের আশেপাশের প্রয়োজনীয় মানুষদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিই ও বোঝাই যে এই বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে গৃহবন্দী হয়ে থাকতেই হবে আরো কিছুদিন । স্বার্থ-হিংসা-বিদ্বেষ-দ্বন্দ্ব-জাত-ধনী-গরীব আর কে কোন রাজনৈতিক দলের কিংবা কে কোন ধর্মের, সব ভুলে গিয়ে শুধুমাত্র মানুষের কথা ভেবেই আমাদের প্রত্যেককেই সামর্থ অনুযায়ী এই কাজে এগিয়ে আসতে হবে । সবশেষে বলি ” জান হ্যায় তো জাহান হ্যায় । ” ধন্যবাদ ।

********

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top